রোববার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

কতটা নিরাপদ? করোনা সংক্রমণের মধ্যে বাইরে খাওয়া

লকডাউন শেষে অনেক রেস্তোরাঁ, দোকানপাট খুলেছে। যদিও  করোনা সংক্রমণ থামছে না। গত তিন মাস ধরে বাড়ির খাবার খেয়ে অনেকেরই স্বাদ বদলের ইচ্ছে হচ্ছে। অন্যদিকে করোনার ভয়ও আছে। অনেকেরই তাই  প্রশ্ন, এই সময় বাইরের খাবার খাওয়া এখন কি নিরাপদ?

বিশেষজ্ঞদের মতে, খাবার নিয়ে ভয় নেই। কিন্তু খাবার তৈরির সময় কতটা স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে সেটাই প্রশ্ন। তাদের মতে,এ পর্যন্ত খাবার থেকে করোনা সংক্রমণের কোনও প্রমাণ মেলেনি।

অন্যদিকে বাইরে খাবার খেতে গেলে রেস্তোরাঁগুলো আদৌ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে কিনা সেটা দেখা দরকার। যেমন-

১. ক্রেতাদের হাতের সঙ্গে জুতাও স্যানিটাইজ়ড করা প্রয়োজন।

২. সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে বসার ব্যবস্থাপনার প্রতি নজর দিতে হবে। ছয়জনের টেবিলে চার জন, চার জনের জায়গায় তিন জনের বসার ব্যবস্থা থাকতে হবে।

৩. ফেলে দেওয়া যায় এমন পাত্রে খাবার পরিবেশনের ব্যবস্থা থাকতে হবে।

৪. খাবার সরবরাহকারীদের মাস্ক, ফেস শিল্ড, গ্লাভস ব্যবহার করছে কিনা সেটা নিশ্চিত হোন।

৫. বিল মেটানোর জন্য কার্ড ব্যবহার করুন। ব্যবহৃত মেশিনটা বারবার স্যানিটাইজার দিয়ে রেস্তোরঁ কর্তৃপক্ষ পরিষ্কার করছে কিনা সেটা জেনে নিন।

৬. সর্বোপরি, খাবার তৈরির সময় রেস্তোরাঁটি কতটা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছে সেটা জানা বেশি জরুরি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা সংক্রমণের এই সময় রাস্তার খাবার কোনও ভাবেই খাওয়া ঠিক নয়।  রাস্তায় দাঁড়িয়ে চা খাওয়ার অভ্যাসও এখন ছাড়তে হবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মনে সন্দেহ বা  ভয় থাকলে এই সময় রেস্তোরাঁয় না যাওয়াই ভালো। অনেকেই অবশ্য এ সময় অনলাইনের মাধ্যমে বাইরে থেকে খাবার আনিয়ে খাচ্ছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মিষ্টি ছাড়া বাইরে থেকে খাবার আনার ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যেই খেয়ে ফেলা উচিত। খাবারটি গরম থাকতেই খেয়ে ফেলতে হবে। এই খাবার বেশি দিন ফ্রিজে রাখা ঠিক নয়।