শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

টাঙ্গাইলে কর্মহীনদের নিয়ে পতিত জমিতে র‌্যাবের সবজি চাষ

টাঙ্গাইলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষদের সহায়তা করতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২। তারা বসতজমির পতিত জমির পরিকল্পিত ব্যবহার করে সাবলম্বী হওয়ার জন্য গ্রামের অসহায় মানুষদের সহযোগিতা করছে। এজন্য পাইলট প্রকল্প হিসেবে র‌্যাব টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বাঘিল ইউনিয়নের একটি গ্রামকে বেছে নিয়েছে। ওই গ্রামের ১২টি দরিদ্র পরিববারকে এই প্রকল্পের আওতায় এনেছে তারা। গতকাল শনিবার এ প্রকল্পের কাজ শুরু করা হয়। এ সময় দরিদ্র ওই সব পরিবারে র‌্যাব ত্রাণ হিসেবে খাদ্য সামগ্রীও বিতরণ করে।

টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর ৩ নং কোম্পানি কমান্ডার মেজর আবু নাঈম মোহাম্মদ তালাত জানান, করোনাভাইরাসের কারণে গ্রামের প্রান্তিক মানুষগুলো বেশি অসহায় হয়ে পড়েছে। করোনার সংক্রমণ দীর্ঘস্থায়ী হলে এসব মানুষগুলোর অবস্থা খুব খারাপ পর্যায়ে যেতে পারে। তাই র‌্যাব নিয়মিত কার্যক্রমের পাশাপাশি ওই সব মানুষদের জন্যও কাজ শুরু করেছে। গ্রামের পতিত জমির পরিকল্পিত ব্যবহার করে সমন্বিতভাবে সবজি চাষ করা হলে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে। তাই বাঘিল ইউনিয়নের কাঠুয়াজুগিনী গ্রামের ১২টি দরিদ্র পরিবারকে এই প্রকল্পের আওতায় এনে তাদের বিনামূল্যে সবজি বীজ দিয়ে মাচা তৈরি করে দেয়া হয়েছে।

ওই পরিবারের সদস্যরা এগুলো পরিচর্যা করবে। আর র‌্যাব সদস্যরা এগুলো তদারকি করবে। দেড় মাসের মধ্যে সবজি উঠতে শুরু করবে। ১২টি পরিবার আলাদা আলাদা সবজি আবাদ করবে। পরে তারা সেই সবজি নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নিবে এবং অবশিষ্ট সবজি বিক্রি করতে পারবে। এই সবজি খাবার জোগান দেয়ার পাশাপাশি পুষ্টির চাহিদাও পূরণ করবে।

র‌্যাবের এই উদ্যোগে খুব খুশি ১২টি পরিবারের সদস্যরা। তারা বলেন, ভাইরাসের কারণে বাইরে যাইতে পারি না। কোনো কাম-কাজ করতে পারি না। এ সময় র‌্যাব আমাদের একটি সবজি বাগান করে দিছে। এতে আমাদের অনেক উপকার হইছে। এখান থেকে আমরা সবজি পাবো। আমাদের আর সবজি কিনতে হবো না।

র‌্যাবের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বাঘিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কামান্ডারকে বাঘিল ইউনিয়নের পক্ষ থেকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাই। তার এই সুন্দর উদ্যোগের কারণে আমার এলাকার ১২টি পরিবার অনেক উপকৃত হবে।

র‌্যাব কমান্ডার মেজর আবু নাঈম মোহাম্মদ তালাত বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী র‌্যাবের সকল সদস্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ইতিমধ্যে আমরা বিভিন্ন ধরনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। এরইধারাবাহিকতায় বাড়ির পাশে পতিত জমির পরিকল্পিত ব্যবহারের মাধ্যমে সমন্বিত উপায়ে মাচাতে বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এতে পুষ্টির চাহিদা মেটানোর পাশাপাশি ওই সব পরিবার সবজি বিক্রি করে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারবে। এখানে সফল হলে এই পরিকল্পনা অন্য জায়গায় ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলে জানান র‌্যাব কমান্ডার।

শনিবার এ প্রকল্প শুরুর সময় উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল সদর আসনের এমপি ছানোয়ার হোসেন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহজাহান আনসার, সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুহাম্মদ আরিফ, বাঘিল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম প্রমুখ।