বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

টাঙ্গাইলে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের বিদ্যালয়ের চুরি

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ভাওড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবে দুঃসাহসিক চুরির ঘটনা ঘটেছে। চোরের দল রাতের আধারে ল্যাবের তিন লাখ ২০ হাজার টাকা মুল্যের ১০টি ল্যাপটপ চুরি করে নিয়ে গেছে। বুধবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. হাবিবুর রহমান হাসান বিদ্যালয়ে গিয়ে এই চুরির ঘটনা দেখতে পান। এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক বিকেলে মির্জাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, গত ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় কর্তৃক মির্জাপুরে ৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনের জন্য ১১টি করে ল্যাপটপ প্রদান করেন। ভাওড়া উচ্চ বিদ্যালয়েও ১১টি ল্যাপটপ প্রদান করা হয়। বিদ্যালয়ের তিনতলা ভবনের দোতলার একটি কক্ষে ১০টি ল্যাপটপ বসিয়ে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন ও একটি প্রধান শিক্ষকের কক্ষে বিদ্যালয়ের কাজে ব্যবহার করা হয়। এরপর থেকে ওই ল্যাবে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত তথ্য প্রযুক্তির ওপর হাতে কলমে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হয়। ল্যাবটিতে বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকরাও নিয়মিত শিক্ষা নিয়ে থাকেন। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধ সরকার সারাদেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করলে ভাওড়া বিদ্যালয়েও সকল প্রকার পাঠদান বন্ধ রাখা হয়। আব্দুল লতিফ নামে এক ব্যক্তি বিদ্যালয়ে নিয়মিত পাহাড়া দিয়ে থাকেন। চোরের দল বিদ্যালয় বন্ধের কোন এক রাতে দোতলায় ল্যাবের কক্ষের তালা ভেঙ্গে ১০টি ল্যাপটপ চুরি করে নিয়ে যায়। বুধবার সকালে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কাজে বিদ্যালয়ে যান। কাজ শেষে বিদ্যালয়ের তিনতলা ভবন পরিদর্শনে গিয়ে প্রধান ফটকের তালা খুলে উপরে গিয়ে ল্যাপটপ চুরির বিষয়টি দেখতে পান। পরিচালনা পরিষদের সদস্যদের বিষয়টি অবগত করে বিকেলে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. হাবিবুর রহমান হাসান জানান, বিদ্যালয়ের তিনতলা ভবনের প্রধান ফটকে তালা ঠিকই রয়েছে। এছাড়া নিয়মিত পাহারাদার নিয়োজিত থাকে। এরপরও কিভাবে চুরি হলো তা আমার বোধগম্য নয়। মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এস আই) ফয়েজ উদ্দিন জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর বিদ্যালয় পরিদর্শন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।