শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

টাঙ্গাইল কালিহাতিতে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কাজের অগ্রগতি

টাংগাইল জেলায় কালিহাতি উপজেলায় গত নভেম্বর ২০১৯ সালে “কালিহাতি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের” নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন করেন। বর্তমান চলমান কাজের অগ্রগতি বেশ এগিয়ে চলছে জানান, উক্ত প্রকল্পের পরিচালক জনাব মনছুরুল আলম।

প্রকল্প পরিচালক জনাব মনছুরুল আলম বলেন আজকের দেশ বার্তাকে জানান দেশের ৪০টি উপজেলায় ৪০টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও চট্টগ্রামে ১টি ইনসটিটিউট অব মেরিন টেকনোলজি স্হাপন শীর্ষক” প্রকল্পের আওতায় ” কালিহাতি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি ১.৫ একর জমির উপর ছিলিমপুর মৌজায় প্রায় ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে।

তিনি এ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি জানান দেশের উন্নয়নে কারিগরি শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আমরা এ খাতকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছি। যে দেশের কারিগরি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের সংখ্যা যত বেশি সে দেশের মাথাপিছু আয়ও তত বেশি।

উন্নয়ন সূচকে তাদের অবস্থান তত ঊর্ধ্বে । এ কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ইলেকট্রনিকস, ইলেকট্রিক্যাল, কম্পিউটার, গার্মেন্টস, ওয়েল্ডিং এন্ড ফেব্রিকেশন, অটো মেকানিক্স, মেশিন টুলস অপারেশন, সিভিল কনস্ট্রাকশন, রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশনার এবং অটো ড্রাইভিং বিষয়ে বিভিন্ন মেয়াদে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। ১৮ মাসের মধ্যে সকল নির্মাণ কাজ শেষ করার জন্য কার্যাদেশ প্রদান করা হয়েছে।

নির্মাণ কাজ শেষে বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ শুরু করা হবে। তিনি আরো বলেন,কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার সমপ্রসারণ এবং উন্নয়ন একান্ত অপরিহার্য। “ডিজিটাল বাংলাদেশ” গড়ার প্রত্যয়ে ভিশন-২১ বাস্তবায়ন তথা দারিদ্র বিমোচন, কর্মস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, আত্ম-কর্মসংস্থান, উদ্যোক্তা উন্নয়ন ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধিতে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার ভূমিকা অপরিসীম।

সর্বোপরি কারিগরি শিক্ষা ছাড়া অধিক জনশক্তিকে জনসম্পদে রূপান্তর করা অসম্ভব। তাই অর্থনৈতিক ভাবে সমৃদ্ধশালী বলতে স্বনির্ভর অর্থনীতি, যার অর্থ কৃষি, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ অন্যান্য আভ্যন্তরীণ বিষয়ে উপযুক্ত বিজ্ঞানসম্মত আধুনিক নিজস্ব প্রযুক্তি সম্বলিত উন্নয়ন আবশ্যক, তার ধারাবাহিকতার মাধ্যম হল কারিগরি শিক্ষা।

বিশ্বের উন্নত দেশের সাথে প্রতিযোগিতায় নিজেকে দক্ষভাবে গড়ে তুলতে হলে এবং দেশকে অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধশালী করতে হলে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নাই। তাই কারিগরি শিক্ষার মান উন্নয়নে সামগ্রিকভাবেই কাজ করতে হবে।

বর্তমানে কালিহাতী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের কাজটি বেশ অগ্রগতি হচ্ছে প্রকল্প পরিচালকের ঘোষিত ১৮ মাসের মধ্যেই প্রকল্পের কাজ শেষ হবে বলে তিনি জানান।