শনিবার, ২৩ Jan ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭

পাকিস্তানি গুপ্তচরের সঙ্গে শাহরুখ-গৌরীর যোগাযোগ

আজকের দেশবার্তা রিপোর্টঃ বলিউডের কিছু সেলেব্রিটির সঙ্গে পাকিস্তানের সেনা ও গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর যোগাযোগ রয়েছে বলে বিস্ফোরক অভিযোগ করেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় নেতা বৈজয়ন্ত জয় পণ্ডা। আর তার অভিযোগের রেশ ধরেই পাক গুপ্তচর সংস্থার সঙ্গে নাম জড়িয়েছে শাহরুখ খান ও তার স্ত্রী গৌরী খানের।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানায়, ঘটনার সূত্রপাত বিজেপি নেতা জয় পণ্ডার একটি বিস্ফোরক টুইট থেকে। টুইটারে ওই নেতা দাবি করেন, ‘বলিউডের কিছু তারকা পাকিস্তানের সেনা ও গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখে। এ সংক্রান্ত কিছু প্রমাণ তিনি নিজে চোখে দেখেছেন। পাশাপাশি পাকিস্তানের মাফিয়াদের সঙ্গেও বলিউডের যোগাযোগ রয়েছে। অনেক ফান্ডিংও হয়। এর থেকেই প্রমাণ হয় যে যোগাযোগ রয়েছে। সেলেব্রিটিদের অনেক বন্ধু পাকিস্তানের জেনারেল এবং আইএসআইয়ের আধিকারিকদের সঙ্গে ছবিও তুলেছে। বলিউডের কাজের সঙ্গে জড়িত যে সমস্ত দেশভক্ত মানুষ রয়েছেন তাদের অনুরোধ করব এই ধরণের মানুষদের সঙ্গে কাজ করা বন্ধ করুন। ’

এরপর স্বাভাবিকভাবেই পণ্ডার ওই মন্তব্যের পর শোরগোল পড়ে যায় নেটদুনিয়ায়। কৌতুহলী অনেকেই হন্যে হয়ে খুঁজতে থাকেন যে সর্বভারতীয় স্তরের এই নেতা কোন বলিউড তারকার দিকে ইঙ্গিত করছেন? 

এরপরই কেঁচো খুড়তে কেউটের মতো বেরিয়ে পড়ে বলিউডের ‘বাদশা’ শাহরুখ খানের একটি পুরনো ছবি। যেখানে অভিনেতাকে দেখা গেছে টনি আশাই ওরফে আজিজ আশাইয়ের সঙ্গে। জম্মু-কাশ্মীরের বেশ কিছু সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত এই টনি আশাই। বেশ কয়েকটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, শাহরুখ-গৌরীর সঙ্গে এই টনি আশাইয়ের ব্যবসায়িক লেনদেন রয়েছে।

বিজেপি নেতা বৈজয়ন্ত জয় পণ্ডার এই অভিযোগের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই রেহান সিদ্দিকি নামের আরও একজন ব্যবসায়ীর সঙ্গে শাহরুখ-গৌরীর ব্যবসায়িক যোগাযোগের কথা প্রকাশ পায়। ভারতীয় সংবাদ সূত্রের খবর, রেহান সিদ্দিকি এবং টনি আশাই এ ২ জনই জম্মু ও কাশ্মীরে নাশকতামূলক কাজের সঙ্গে জড়িত। এছাড়া পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় জম্মু অ্যান্ড কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের মাধ্যমে জঙ্গিদের সরাসরি অর্থ সাহায্যের অভিযোগও রয়েছে টনি ও রেহানের বিরুদ্ধে।

পেশায় প্রকৌশলী টনি আশাই বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যলিফোর্নিয়ায় থাকেন। অতীতে কাশ্মীর নিয়ে ভারতবিদ্বেষী মন্তব্য করে সংবাদের শিরোনামেও এসেছিলেন এই অনাবাসিক ভারতীয় নাগরিক। অন্যদিকে রেহান সিদ্দিকি এখন হিউস্টনে থাকেন। সেখানে তার একটি নিজস্ব রেডিও চ্যানেল রয়েছে, যেখানে প্রায়ই সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ ও কাশ্মীর ইস্যুতে হিংসাকে মদত দেয় এমন বার্তা দিতে শোনা গেছে তাকে। উল্লেখ্য, এই রেহানই দক্ষিণ এশিয়ায় চারশ’রও বেশি অনুষ্ঠানে বলিউড তারকাদের নিয়ে গেছেন বলে জানা যায়।  

সম্প্রতি রেহান সিদ্দিকিকে কালো তালিকাভুক্ত করেছে দিল্লি। এবার বিজয় পণ্ডার বিস্ফোরক মন্তব্যের রেশ ধরেই টনি ওরফে আজিজ আশাই এবং রেহান সিদ্দিকির সঙ্গে ব্যবসায়িক যোগাযোগ থাকায় বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা শাহরুখ খানের নাম জড়ালো পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই-এর সঙ্গে।

তবে ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, পাক গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে যাবতীয় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন টনি আশাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.