বাংলাদেশের আর্থিক ঝুঁকি কম করোনায়

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের অর্থনৈতিক প্রভাবে তুলনামূলক কম ঝুঁকিতে রয়েছে বাংলাদেশ। বিখ্যাত সাময়িকী দি ইকোনমিস্টের এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

গত ২ মে ‘হুইচ এমার্জিং মার্কেটস আর ইন মোস্ট পেরিল’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

করোনাভাইরাসের মহামারীর অভিঘাতে কোন দেশ অর্থনৈতিকভাবে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে এবং কোন দেশ তুলনামূলকভাবে ভালো অবস্থায় আছে, তা বুঝতে একটি তালিকা করে সাময়িকীটি।

সেই তালিকায় নবম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। সে হিসাবে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায়ও এগিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।

মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) অনুপাতে সরকারি ঋণ, বিদেশি ঋণ, সুদসহ ঋণের অন্যান্য খরচ ও রিজার্ভের পরিস্থিতি এই চার সূচকে বাংলাদেশ মোটামুটি শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে।

বিশ্বের ৬৬ দেশের এ তালিকায় বাংলাদেশ রয়েছে নবম স্থানে। এই তালিকায় ভারত ১৮তম, পাকিস্তান ৪৩ এবং শ্রীলংকা রয়েছে ৬১তম অবস্থানে।

করোনাভাইরাস সংকটে তুলনামূলকভাবে নিরাপদ অবস্থানে থাকা শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে রয়েছে– বতসোয়ানা, তাইওয়ান, দক্ষিণ কোরিয়া, পেরু, রাশিয়া, ফিলিপাইন, থাইল্যান্ড, সৌদি আরব, বাংলাদেশ ও চীন।

আর সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকা ১০ দেশের তালিকায় রয়েছে– ভেনিজুয়েলা, লেবানন, জাম্বিয়া, বাহরাইন, অ্যাঙ্গোলা, শ্রীলংকা, তিউনিশিয়া, মঙ্গোলিয়া, ওমান ও আর্জেন্টিনা।

প্রসঙ্গত, করোনা মহামারীতে বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত ১৮২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ১০ হাজার। সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ২১০।