সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯

বিজ্ঞান-সায়েন্সের তরুণ-তরুণীদের পছন্দ ফিকশন

বিজ্ঞান ও সায়েন্স ফিকশনের বই কিশোর-তরুণদের সবচেয়ে পছন্দের। তাই গ্রন্থমেলায় প্রায় সব স্টল ও প্যাভিলিয়নেই বিজ্ঞান ও সায়েন্স ফিকশনের বই আছে। স্কুলের ছেলে-মেয়েরা তো বটেই, কলেজ এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থীও বিজ্ঞান ও সায়েন্স ফিকশনের বই পড়ে। আর গ্রন্থমেলায় এ ধরনের বইয়ের কাটতিও বেশ। এই ধরনের বই থেকে যেমন বিজ্ঞানবিষয়ক অনেক কিছু জানা যায়, একইভাবে জানা যায় এসব নানা আবিষ্কার ও বিজ্ঞানীকে নিয়ে। আর সায়েন্স ফিকশন তো এখন সারা বিশ্বেই অন্যতম এক সাহিত্য। বিশ্বের খ্যাতিমান সব লেখকের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে আমাদের লেখকরাও এ ধারার লেখালেখিতে এগিয়ে গেছেন। সবচেয়ে বড় কথা- এ ধরনের বই মানুষকে তার জগৎ ও আশপাশ সম্পর্কে নতুন করে ভাবতে শেখায়। এবারের গ্রন্থমেলায় বেশকিছু উল্লেখযোগ্য বিজ্ঞান ও সায়েন্স ফিকশনবিষয়ক বই প্রকাশ হয়েছে।

এর মধ্যে তাম্রলিপি থেকে এসেছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন ‘আকাশলীন’, কথা প্রকাশ এনেছে মুহম্মদ মনিরুল হুদার সায়েন্স ফিকশন ‘ছোটন’, অনুপম এনেছে ভবেশ রায়ের ‘বিস্ময়কর রোবটিকনোলজির হাজার তথ্য’, বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত উত্তম কুমার সরকারের অর্থনৈতিক প্রাণিবিজ্ঞান, বিবেকানন্দ বিশ্বাসের আর্থোপ্রাডো, তপন চৌধুরীর জীবকোষ, অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অ্যাডভান্স বায়োলজি, মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়ার জেনেটিক্যালি মডিফাইড ফসল বর্তমান ও ভবিষ্যৎ, সুব্রত কুমার সাহার পরিবেশবিজ্ঞান, মো. মকবুল হোসেনের মৃত্তিকা ভূগোল, জালালুর রহমানের অর্ধপরিবাহী বিজ্ঞান, এএম হারুন-অর-রশিদের আধুনিক নিউক্লিয়ার পদার্থবিজ্ঞান। বিজ্ঞান একাডেমি এনেছে মনোয়ারুল আহমেদ বিন সালেহ ও শাহরিয়াজ সরকারের মেধা বিকাশে জ্ঞানবিজ্ঞান, শাহরিয়াজ সরকারের সম্পাদনায় দৈনন্দিন বিজ্ঞান, হাতেখড়ি এনেছে ডা. মো. মোজাম্মেল হোসাইনের ডিজিজ ডায়াগনোসিস অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট, অনুপম প্রকাশনী থেকে সৌমিত্র চক্রবর্তীর পৃথিবী, মহাকাশ, প্রাণিজগৎ, বিজ্ঞান ও সংখ্যা, সৌমেন সাহার রেবোটিক ও ন্যানো ফিজিও, শরীফ মাহমুদ ছিদ্দিকীর চিকিৎসায় বিজ্ঞান ও রহস্যে ভরা ব্ল্যাকহোল।

কথাপ্রকাশ থেকে এসেছে ডা. এমএ হালিম খানের ছন্দে ছন্দে পুষ্টিবিজ্ঞান, ডা. মিজানুর রহমানের দুই শতাধিক রোগের কথা, ডা. সজল আশফাকের খাওয়ার জন্য বাঁচি, না-বাঁচার জন্য খাই, ডা. কামরুল হাসানের খাবার যখন খেতে বারণ, অক্ষর প্রকাশনী থেকে সৌমেন সাহার মানব মস্তিষ্কের ও ভয় কী, মহাবিশ্বের রহস্য, রসায়নের রহস্য, এসো বিজ্ঞান শিখি, তরুণ বিজ্ঞানীদের প্রজেক্ট এবং হাতেনাতে বিজ্ঞানের পরীক্ষা, অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিজ্ঞান জিজ্ঞাসা ও ছোটদের সচিত্র বিজ্ঞান কোষ। এছাড়া এ এ এম জাকারিয়া মিলনের গল্পগ্রন্থ ‘চোখ থাকিতে অন্ধ’ প্রকাশ করেছে অন্বেষা প্রকাশনী, ইছামতি প্রকাশনী থেকে বেরিয়েছে রাশেদুল ইসলামের গল্পগ্রন্থ ‘সাকুরা মৌসুমে’। এছাড়া বাংলা একাডেমির জনসংযোগ উপবিভাগের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার গ্রন্থমেলায় নতুন বই এসেছে ২০৭টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বইয়ের মধ্যে বাংলা একাডেমি প্রকাশ করেছে বঙ্গবন্ধুবিষয়ক সাইমন জাকারিয়ার লেখা বই ‘সাধক কবিদের রচনায় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও রাজনীতি’, বেঙ্গল পাবলিকেশন্স এনেছে আনোয়ারা সৈয়দ হকের ‘খাদ’, অন্যপ্রকাশ এনেছে হাসনাত আবদুল হাইয়ের ‘কলকাতা রানাঘাট’, কাকলী এনেছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের ‘রহস্যময় ব্ল্যাকহোল’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স এনেছে হক ফারুক আহমেদের গল্পগ্রন্থ ‘শহরে দেবশিশু’ রাত্রি প্রকাশনী এনেছে আহসান হাবীবের জোকসের বই ‘জাস্ট জোকস’, অনন্যা এনেছে ইমদাদুল হক মিলনের উপন্যাস ‘প্রিয়দর্শিনী’, একই প্রকাশনী থেকে এসেছে ফকির আলমগীরের ‘স্মৃতি আলাপনে মুক্তিযুদ্ধ’, দ্য রয়েল পাবলিশার্স থেকে প্রকাশ হয়েছে আলী ইমামের কিশোর গল্পের বই ‘রুপালি আলো’, অনন্যা প্রকাশ করেছে হাবিবুল্লাহ সিরাজীর কবিতার বই ‘কবিতা সমগ্র-২’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স প্রকাশ করেছে কবীর চৌধুরীর ‘পুশকিন ও অন্যান্য’, শিকড় প্রকাশ করেছে রকিব হাসানের কিশোরগল্প ‘ভূত সমগ্র-২’, ডেইলি স্টার বুকস প্রকাশ করেছে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সাক্ষাৎকার গ্রন্থ ‘আজ ও আগামীকাল’।