রোববার, ০২ Aug ২০২০, ১৮ শ্রাবণ ১৪২৭

যুব মহিলা লীগ নেত্রী বহিষ্কার ধর্ষণে সহায়তা করায়

আজকের দেশবার্তা রিপোর্টঃ গণধর্ষণে সহায়তা করার অভিযোগে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক আবিদা সুলতানা লাকীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। শুক্রবার (১৭ জুলাই) রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মামলার বিষয়টি উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পঞ্চগড় জেলা শাখা যুব মহিলা লীগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দলবিরোধী ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বোদা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক আবিদা সুলতানা লাকীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হলো।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গাজীপুরের কালিয়াকৈর এলাকায় থাকতেন গণধর্ষণের শিকার ওই তরুণী। ইউটিউবের জন্য বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওতে কাজ করার সময় পাঁচ বছর আগে পরিচয় হয় পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার সাজ্জাদ হোসেন মিলনের সঙ্গে। ঢাকায় মিলন ভিডিও সম্পাদনার কাজ করতেন। নিজেকে প্রথম বাংলা টিভি নামে একটি প্রতিষ্ঠানের চিফ নিউজ এডিটর ও গ্রাফিক্স ডিজাইনার বলে পরিচয় দিতেন সাজ্জাদ। এই সম্পর্কের সূত্র ধরেই সাজ্জাদ নিজ এলাকায় একটি মিউজিক ভিডিও তৈরির জন্য মডেল হিসেবে কাজ করাতে ওই তরুণীকে গত ১৪ জুলাই সকালে বোদায় নিয়ে আসেন। সাজ্জাদ তাকে নিয়ে বোদা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক আবিদা সুলতানা লাকীর বাড়িতে রাখেন। ওই বাড়িতেই সাজ্জাদসহ ৪-৫ জন মিলে তাকে ধর্ষণ করেন। পরদিন ওই তরুণীকে বোদা পৌরসভার ভাসাইনগরে এক বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও তাকে গণধর্ষণ করা হয়। 
উল্লেখ্য, গত ১৫ জুলাই রাতে আবিদা সুলতানা লাকীসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ১০-১২ জনকে আসামি করে পঞ্চগড়ের বোদা থানায় গণধর্ষণ মামলা করা হয়েছে।