মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৭ আশ্বিন ১৪২৭

রামোস-ফাতির নৈপুণ্যে স্পেনের সহজ জয়

নিজস্ব সংবাদদাতা : আনসু ফাতি ও সার্জিও রামোসের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ভর করে ইউক্রেনকে ৪-০ গোলে হারিয়েছে স্পেন।  

রোববার দিনগত রাতে মাদ্রিদের এস্তাদিয়ো আলফ্রেদো দি স্তেফানোয় উয়েফা ন্যাশনস লিগের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে বার্সেলোনার ‘ওয়ান্ডার কিড’ ৯৫ বছর পুরনো রেকর্ড ভেঙেছেন। অন্যদিকে রেকর্ড বইয়ে নাম লেখিয়েছেন স্পেন অধিনায়কও।

স্পেনের প্রথম গোলটি আসে রামোসের পা থেকে। পেনাল্টি থেকে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। পরে হেড থেকেও একটি গোল করেন এই রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার। তবে ম্যাচের সব আলো কেড়ে নিয়েছেন ফাতি। ইউক্রেনের বিপক্ষে মাত্র ১৭ বছর ৩১১ দিন বয়সে গোল করে স্পেন জাতীয় দলের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সে গোল করার ৯৫ বছর আগে গড়া এক রেকর্ড ভেঙেছেন ফাতি।  

ফাতি এর আগে চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সে গোল করার রেকর্ডও ভেঙেছিলেন। শুধু কি তাই, বার্সার জার্সিতে সবচেয়ে কম বয়সে লা লিগায় গোল পাওয়ার রেকর্ডও তার দখলে। সেই সঙ্গে ন্যাশনস লিগের ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে একাদশে সুযোগ পাওয়ার কীর্তিও এখন তার। ইউক্রেন ম্যাচে ২০ গজ দূর থেকে পাওয়া গোলটি আবার স্পেনের জার্সিতে একাদশে সুযোগ পাওয়ার পর তার প্রথম গোল।  

ম্যাচের প্রথম গোলটিতেও ফাতির ভূমিকা ছিল। ফাউলের শিকার শিকার হয়ে পেনাল্টির সুযোগ তিনিই পাইয়ে দিয়েছিলেন, যা থেকে গোল করেন রামোস। এদিকে দুই গোল করা রামোস রীতিমত ধারাবাহিকতার দারুণ উদাহরণ স্থাপন করেছেন। সর্বশেষ ১৫ ম্যাচে ১০ গোল করেছেন তিনি।  

৩৪ বছর বয়সী রামোস ডিফেন্ডার হয়েও স্পেনের জার্সিতে সর্বোচ্চ (২৩) গোলের মালিক হয়েছেন। স্পেনের জার্সিতে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ডেও তিনি কিংবদন্তি আলফ্রেদো দি স্তেফানোর রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন। পেনাল্টি থেকে গোল করার রেকর্ডেও নিজেকে অনন্য করে তুলেছেন রামোস। এই নিয়ে টানা সপ্তম ও দেশের হয়ে সর্বশেষ ১০ ম্যাচের ৮টিতেই পেনাল্টি থেকে গোল করলেন তিনি।

গিনি-বিসাউইয়ে জন্মগ্রহণকারী ফাতি (মাত্র ৬ বছর বয়সে সেভিয়ায় পাড়ি জমান) এর আগে জার্মানির সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র ম্যাচে স্পেনের জার্সিতে ৮৪ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়সে অভিষেক হওয়ার রেকর্ড গড়েন। আর এক ম্যাচ পরেই তিনি ১৯২৫ সালে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮ বছর ৩৪৪ মাস বয়সে হুয়ান এরাজকুইনের গড়া রেকর্ড ভেঙে দিলেন।

এদিকে ইউক্রেনের বিপক্ষে স্পেন দলের আরেক নতুন মুখ ফেরান রোরেস দ্বিতীয়ার্ধে ইউক্রেনের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন। ফলে গ্রুপ-৪ থেকে ২ ম্যাচে ৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষ উঠে গেল স্পেন। সমান ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ইউক্রেন। ২ পয়েন্ট নিয়ে তিনে জার্মানি এবং ১ পয়েন্ট নিয়ে চারে সুইজারল্যান্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *