শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

সখীপুরে লেবু চাষে শত কৃষকের ভাগ্যের চাকা বদল

টাঙ্গাইলের সখীপুরে দিন দিন লেবু চাষে ঝুঁকছে কৃষকরা। অধিক লাভজনক এই লেবু চাষ করে উপজেলার শত শত কৃষকের ভাগ্যের চাকা আজ বদলে গিয়েছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় মোট ৬০ হেক্টর জমিতে লেবু চাষ হয়েছে। লেবু চাষ খুবই লাভজনক। লেবুর পাশাপাশি মাল্টাও চাষ হচ্ছে। চাষিদের কাছে লেবু এখন অর্থকরী ফসল হিসেবে পরিচিত। লেবু যেন কৃষকের ভাগ্য পরিবর্তনের ফসল। অন্যান্য বছরের তুলনায় লেবু চাষিরা এবার লাভবান হচ্ছে তিনগুণ বেশি। চলতি মৌসুমে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল লেবুর চাহিদা বেড়ে যায় সারা দেশে। মূল্য বেড়ে যাওয়ায় লাভবান হচ্ছেন চাষিরা। একটি লেবু সর্বোচ্চ ১২ থেকে ১৪ টাকায় বিক্রি হয়েছে চলতি মৌসুমে। সর্বনিন্ম ৬ থেকে ৭ টাকায় একটি লেবু বিক্রি হয়েছে। পবিত্র রমজান মাসে লেবুর দাম ওঠানামা করছে।

সখীপুরের আদর্শ লেবু চাষি মোসলেম উদ্দিন জানান, যারা ২ থেকে ৩ বিঘা জমিতে লেবু চাষ করেছেন তারা প্রতিদিন ১০ থেকে ২০ হাজার টাকার লেবু বিক্রি করেন। প্রথমদিকে একশ লেবু বিক্রি হয়েছে ৬-৭ শত টাকায়। এখন বিক্রি হচ্ছে চারশ থেকে সাড়ে চারশ টাকায়। এক বিঘা জমিতে লেবু থাকলে প্রতিদিন কমপক্ষে ১ হাজার লেবু তোলা যায়। যারা দু চার কাঠা লেবু চাষ করছে সংসারে তাদের কোনো অভাব নেই। যারা আরও বেশি চাষ করছে বদলে যাচ্ছে তাদের ভাগ্যের চাকা। অধিক লাভজনক হওয়ায় লেবু চাষ করে খুশি এলাকার কৃষকরা।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নূরুল ইসলাম বলেন, লেবু চাষে ঝুঁকি কম লাভ বেশি। লেবু চাষের পাশাপাশি লেবু জাতীয় ফসল যেমন মাল্টা চাষের জন্য কৃষকদের নিয়মিত পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে আদা, হলুদ, ভুট্টা, চাষ করার জন্যও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে কৃষকদের।