মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

সাংবাদিক মাহমুদুল হাকিম অপুর করোনায় মৃত্যু

বিশিষ্ট বিশিষ্ট ক্রীড়া সাংবাদিক ও দৈনিক সময়ের আলোর সিনিয়র সহ-সম্পাদক মাহমুদুল হাকিম অপুর করোনা উপর্সগ নিয়ে মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ বুধবার (৬ মে) ভোররাতে সেহরির জন্য ডাকলে তার কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। পরিবারের সদস্যরা তাকে মৃত অবস্থায় পান।সাংবাদিক মাহমুদুল হাকিম অপু ঘুমের মধ্যেই মারা যান বলে নিশ্চিত করেন তার পরিবার। ৫২ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয়। 

এ বিষয়ে দৈনিক সময়ের আলোর সিনিয়র রিপোর্টার ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সংবাদমাধ্যমকে জানান, কি কারণে মারা গেছেন তা আমরা এখনও নিশ্চিত নই। তবে করোনা আক্রান্ত হয়ে আমাদের অফিসের একজন মারা যাওয়ায় এবং অফিসের একাধিক ব্যক্তির করোনা পজিটিভ হওয়া তার ক্ষেত্রেও সেই আশঙ্কা করা হচ্ছে। এজন্য  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তার নমুনা সংগ্রহ করছেন। জানা গেছে, চলমান করোনা সংক্রমণের কারণে গত ২৯ এপ্রিল দৈনিক সময়ের আলো অফিস লকডাউন করার আগ পর্যন্ত তিনি অফিস করেছেন। এরপর থেকে তিনি বাসায় অবস্থান করছিলেন। এদিকে, মাহমুদুল হাকিম অপুর মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এম এনামুল হক, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. রমজানুল হক নিহাদ, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিনুল হক নাবিল, সময়ের আলোর প্রকাশক গাজী আহমেদ উল্লাহ ও ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক কমলেশ রায়, আজকের দেশবার্তার সম্পাদক সহকারি অধ্যাপক রেজাউল করিম রেজা,কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, খেলাঘর গাজীপুর জেলা কমিটি, মিতালী খেলাঘর আসর,ধনুয়া(দঃ),শ্রীপুর,গাজীপুরসহ দেশের সাংবাদিক মহল। এর আগে গত ২৮ এপ্রিল রাতে ঢাকার রিজেন্ট হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন একই পত্রিকার প্রধান প্রতিবেদক হুমায়ুন কবির খোকন। তিনি বেশ কিছু দিন ধরেই দাঁতের ব্যথায় ভুগছিলেন, সঙ্গে ছিল জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট। অবস্থার অবনতি হলে তাকে রিজেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে তিনি মারা যান। পরবর্তীতে তার নমুনা সংগ্রহ করা হলে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন বলে জানা যায়। পরদিন থেকেই সময়ের আলোর প্রধান কার্যালয় লকডাউন করা হয়েছে। বিকল্প ব্যবস্থায় পত্রিকাটির প্রকাশনা অব্যাহত রয়েছে। 

এ পর্যন্ত সারা দেশে ৬৬ জন সাংবাদিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।তাদের মধ্যে সময়ের আলোর দু’জন মারা গেলেন।