শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

সাইনাসের সমস্যা কমাতে যা করণীয়

নিজস্ব সংবাদদাতা : অনেকেরই সাইনাসের সমস্যা আছে। এটি খুব প্রচলিত এবং কষ্টদায়ক এক সমস্যা। যাদের নাকের হাড় বাঁকা সাধারণত তাদের এ সমস্যা হয়। আবার অ্যালার্জির কারণেও অনেকের এটা হতে পারে। এই সমস্যা তীব্র হলে প্রচণ্ড মাথা ব্যথা হয়, সারাক্ষণ নাক-মাথায় ভারী ভাব, এমনকি ব্যথার কারণে জ্বরও চলে আসে। একটু অনিয়ম হলেই এই সমস্যা বাড়তে পারে।

যাদের সাইনাসের সমস্যা আছে তাদের সারা বছরই সাবধান থাকা প্রয়োজন। সমস্যা বেশি হলে কখনও কখনও ওষুধ খাওয়ার প্রয়োজনীয়তা হতে পারে। তবে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি অনুসরণ করলে এই রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। যেমন-

শরীরে আর্দ্রতা বজায় রাখা : শরীরে পানির ঘাটতি হলে মাথা ব্যথা হয়। এজন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করা উচিত। এছাড়াও চিনি ছাড়া চা, জুস খেলে শরীরে পানির ভারসাম্যতা বজায় থাকে। এসব তরল শরীর থেকে কফ বের করতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে শরীরের অস্বস্তি কমায়। যাদের সাইনাসের সমস্যা আছে তাদের অ্যালকোহল, ধূমপান থেকে দূরে থাকা উচিত। কারণ এগুলো শরীর পানিশূন্যতা তৈরি করে।

মসলা : বিভিন্ন ধরনের ঝাল মসলা বিশেষ করে গোলমরিচে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরী এবং অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান জমে থাকা কফ বের করতে সাহায্য করে।

ভাপ নেওয়া : সাইনাসের সমস্যা কমাতে ভাপ নেওয়া ম্যাজিকের মতো কাজ করে। চিকিৎসকরাও সাইনাসের রোগীদের নিয়মিত ভাপ নেওয়ার পরামর্শ দেন। তিন ফোঁটা রোজমেরি তেলের সঙ্গে, ৩ ফোটা পুদিনা পাতার তেল, ২ ফোঁটা ইউক্যালিপটাস তেল, গোলমরিচের তেল গরম পানিতে মিশিয়ে ভাপ নিলে বন্ধ নাক খুলতে সাহায্য করবে।

কাঁচা হলুদ ও আদা : হলুদ অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলিতেও সমৃদ্ধ একটি মসলা। গরম পানিতে সামান্য আদা আর হলুদ একসঙ্গে মিশিয়ে খেলে সাইনাসের সমস্যায় আরাম পাওয়া যায়। এছাড়া দিনে ১ থেকে ৩ বার ১ চামচ মধুর সঙ্গে আদার রস মিশিয়ে খেলেও আরাম পাবেন।

অ্যাপেল সিডার ভিনেগার : প্রাকৃতিক উপাদানসমৃদ্ধ অ্যাপেল সিডার ভিনেগারে নানা ধরনের স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়া যায়। এক কাপ হালকা গরম পানি বা চায়ের সঙ্গে নিয়মিত এক বা আধা চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে খেলে সাইনাসের সমস্যা কমে। চাইলে মিশ্রণটির সঙ্গে স্বাদ মতো লেবু ও মধু মিশিয়ে নিতে পারেন।

রসুন ও মধু : সাইনাসের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে প্রতিদিন খাদ্যতালিকায় এক কোয়া রসুন ও এক চামচ মধু যোগ করুন। এই দুটি উপাদানেই একাধিক রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা রয়েছে। বিশেষ করে কফজনিত অসুখ ঠেকাতে এগুলোর জুড়ি নেই। এক কোয়া রসুনের সঙ্গে দুই চামচ মধু মিশিয়ে খেলে সাইনাসের আক্রমণ ঠেকাতে পারবেন অনেকটাই।

গরম তোয়ালে ব্যবহার : গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে ভালো করে নিংড়ে নিন। এ বার এই তোয়ালে মুখের উপর দিয়ে কিছুক্ষণ শুয়ে থাকুন। এতে অনেকটা আরাম পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.