মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে এবার কঙ্গনা রানাউতকে জেরা করবে মুম্বাই পুলিশ

আজকের দেশবার্তা রিপোর্টঃ সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে এবার জেরা করা হবে অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউতকে। মুম্বাই পুলিশের তরফে ইতিমধ্যেই অভিনেত্রীর বান্দ্রার ফ্ল্যাটে নোটিস পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, কঙ্গনা মুম্বাই ফিরলেই তাঁকে বান্দ্রা থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। বর্তমানে অভিনেত্রী রয়েছেন মানালিতে নিজের পরিবারের কাছে। তার পক্ষে এখন আসা সম্ভব নয়, তাই কঙ্গনার মুম্বাইয়ের বাড়ির এক পরিচারকের হাতেই নাকি নোটিস দিয়ে আসা হয়েছে পুলিশের তরফে। কোন কারণে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন সুশান্ত, কিংবা কেনই বা এরকম চরম একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলেন? সেই প্রসঙ্গেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে কঙ্গনা রানাউতকে (Kangana Ranaut)। সংশ্লিষ্ট সূত্রের তরফেই জানানো হয়েছে একথা।

প্রসঙ্গত, সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে পুলিশের নজরে প্রখ্যাত চিত্র সমালোচক রাজীব মসনদও। যিনি কিনা নাম না করে সংবাদ মাধ্যমে সুশান্তের সমালোচনা করেছিলেন এর আগে। যা পড়ে বিমর্ষ হয়ে গিয়েছিলেন অভিনেতা, সেই বিষয়েই জেরা করা হতে পারে তাঁকে, বলে জানা গিয়েছে।

উপরন্তু, সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে বলিউডের একাধিক তারকাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর জন্য নেটজনতার মন পেলেও কঙ্গনাকে কিন্তু বাণবিদ্ধ করেছেন ইন্ডাস্ট্রির অনেকেই! যা নিয়ে স্বরা ভাস্কর, তাপসী পান্নু এবং কঙ্গনা রানাউতের বাক-বিতণ্ডায় সরগরম নেটদুনিয়া। এদিকে কঙ্গনার এই রণং দেহি ভাবমূর্তিকে একহাত নিয়ে অনুরাগ বলেছেন, “কে এই নতুন কঙ্গনা আমি চিনি না! আগে ও আমার ভাল বন্ধু ছিল। আমার কাজের প্রশংসা করে অনেক কথা বলত। কিন্তু ওর এই রুদ্র রূপ আমার অচেনা।”

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক ভিডিও পোস্ট করে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী। ‘এটা আত্মহত্যা নয়, খুন’, বলে অভিনেতার মৃত্যুর দিনই বোমা ফাটিয়েছিলেন কঙ্গনা। তাঁকে বলিউডের ‘আয়রন লেডি’ বললেও অত্যুক্তি হয় না! কারণ জোহর, সলমন খান, মহেশ ভাট থেকে শুরু করে যশ রাজ ফিল্মসের কর্ণধার আদিত্য চোপড়াকেও রেয়াত করেননি কঙ্গনা। ইন্ডাস্ট্রির ডাকসাইটে এই তারকারা ‘নেপোটিজমের ঝাণ্ডাধারী’ বলে কটাক্ষও করেছেন কঙ্গনা। সুশান্তকে অবসাদের দিকে ঠেলে দেওয়ার জন্য প্রকাশ্যেই এঁদের দিকে নিশানা দেগেছেন তিনি। আর তার জেরেই সম্ভবত, মুম্বাই পুলিশের তরফে জেরা করা হবে তাঁকে।

দিন কয়েক আগেই পদ্মশ্রী ফেরানোর হুঁশিয়ারি দিয়ে কঙ্গনা মন্তব্য করেছিলেন যে, “মুম্বাই পুলিশ আমার সঙ্গে যোগাযোগ করলে আমি তাঁদের জানিয়ে দিয়েছি যে আমাকে জেরা করতে হলে মানালিতে কাউকে পাঠান, কেননা আমি গোটা লকডাউন জুড়েই এখানে পরিবারের সঙ্গে রয়েছি। কিন্তু ওরা তো এখনও কোনও আইনি নোটিস পাঠায়নি আমাকে! শুনুন, আমি সবটাই প্রকাশ্যে বলেছি, কোনও রাখঢাক নেই। তা প্রমাণ করেও দেখাতে পারি। আর মিথ্যে হলে পদ্মশ্রী ফিরিয়ে দেব। আমি নিজের কথা পালটাই না।”