শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯

স্বাস্থ্যবিধি মেনেই চলছে গণপরিবহন, অব্যাহত থাকা নিয়ে আশঙ্কা

করোনা ভাইরাসের কারণে ৬৭ দিন বন্ধ থাকার পর প্রথম দিনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করছে গণপরিবহন। সোমবার (১ জুন) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজধানীর কোনো সড়কেই অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে বাস চলাচল করতে দেখা যায়নি। তবে এ অবস্থা কতদিন, কতক্ষণ থাকে তা নিয়ে আশঙ্কার কথা বলেছেন যাত্রীরা।

তবে যাত্রীরা বলছেন, নিয়মিত তদারকি না করলে ফের পুরনো চেহারায় ফিরবে গণপরিবহন। এজন্য প্রথম দিনের মতো পরবর্তী দিনগুলোতেও যাতে স্বাস্থ্যবিধি মানা হয়, সেটা নিশ্চিত করতে পুলিশকে সক্রিয় হতে হবে। 

সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, অর্ধেক যাত্রী নিয়েই গণপরিবহনগুলো নগরে চলাচল করছে। শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে এক আসন ফাঁকা রেখে যাত্রীরা যাতায়াত করছেন। আগের মতো ধাক্কাধাক্কি, তাড়াহুড়ো কোনোটাই নেই। 

স্বাধীন, তরঙ্গ, তুরাগ, প্রচেষ্টা, নূর ও আবাবিল পরিবহনে দেখা যায়, আগের মতো যাত্রীদের তাড়াহুড়ো নেই। নির্ধারিত আসনেই বসে যাতায়াত করছেন লোকজন। প্রথম দিন যাত্রীও অনেকটা কম। অধিকাংশ লোকজনকেই মাস্ক পরে গণপরিবহনে যাতায়াত করতে দেখা গেছে। যাত্রী বাড়লে অবস্থা এমন থাকে কিনা তা নিয়ে আশঙ্কায় যাতায়াতকারীরা।

তরঙ্গ পরিবহনের যাত্রী সায়মা এ প্রতিবেদককে বলেন, প্রথম দিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলছে। তবে সেটা কতটুকু কন্টিনিউ করতে পারে, সেটা দেখার বিষয়। যদি নিয়মিত তদারকি করা না হয়, তাহলে ফের পুরনো চেহারায় ফিরবে গণপরিবহন। 

বিহঙ্গ পরিবহনের চালকের সহকারী ইকরাম এ প্রতিবেদককে বলেন, আমরা সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী অর্ধেক যাত্রী তুলছি। এছাড়াও যাত্রীদের মাস্ক ছাড়া উঠতে দিচ্ছি না। 

প্রচেষ্টা পরিবহনের চালক সাকির এ প্রতিবেদককে বলেন, মালিক সমিতির নির্দেশনা মোতাবেক আমরা যাত্রী পরিবহন করছি। অতিরিক্ত যাত্রী নিচ্ছি না। 

বলাকা পরিবহনের যাত্রী তায়েফ বলেন, আমাদের আরও একটু সচেতন হতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রবণতা সবার মধ্যে বাড়াতে হবে।